আমাদের ন্যায্য গ্রহটি এই অত্যাশ্চর্য ফটোগ্রাফের স্থানের কালো পটভূমির বিরুদ্ধে একটি বাঁকা, সূর্যালোক ক্রিসেন্ট খেলাধুলা করে।

বর্তমানে মানুষের গ্রহের দৃষ্টিকোণ থেকে এটি পৃথিবীর শেষ চিত্র
 দৃষ্টিকোণ থেকে এটি পৃথিবীর শেষ চিত্র 

 

দৃষ্টিকোণ থেকে এটি পৃথিবীর শেষ চিত্র 


আমাদের ন্যায্য গ্রহটি এই অত্যাশ্চর্য ফটোগ্রাফের স্থানের কালো পটভূমির বিরুদ্ধে একটি বাঁকা, সূর্যালোক ক্রিসেন্ট খেলাধুলা করে। অপরিচিত দৃষ্টিকোণ থেকে, পৃথিবীটি ছোট এবং দূরবর্তী গ্রহের দূরবীন চিত্রের মতো পুরো দিগন্তটি সম্পূর্ণরূপে দেখার ক্ষেত্রের মধ্যে is আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনটিতে ক্রুদের দ্বারা উপভোগ করা, গ্রহটির খুব কাছাকাছি দর্শনগুলি নিম্ন পৃথিবীর কক্ষপথ থেকে সম্ভব। প্রতি 90 মিনিটের মধ্যে একবার গ্রহকে প্রদক্ষিণ করে, মেঘ, মহাসাগর এবং মহাদেশগুলির একটি দর্শনীয় স্থান তাদের দূরত্বে গ্রহের কিনার আংশিক চাপ দিয়ে তাদের নীচে স্ক্রোল করে। তবে এই ডিজিটালভাবে পুনরুদ্ধার করা চিত্রটি এখনও অবধি কেবল 24 জন মানুষের দ্বারা অর্জিত একটি দৃশ্য উপস্থাপন করেছে, অ্যাপোলো নভোচারী যারা চাঁদে ভ্রমণ করেছিলেন এবং আবার 1968 এবং 1972 এর মধ্যে ফিরে এসেছিলেন। ১,, ডিসেম্বর ১,, ১৯ 197২ now বর্তমানে মানুষের গ্রহের দৃষ্টিকোণ থেকে এটি পৃথিবীর শেষ চিত্র।

বন্ধুরা এটা আমাদের পৃথিবী এই পৃথিবীর কোন না কোন জায়গায় আমরা বাস করি এবং আমরা যতটুকু জানি তাও এর মধ্যে অবস্থিত। কিন্তু যদি সমগ্র ব্রহ্মান্ডের সাথে তুলনা করা হয় তবে আমাদের পৃথিবী ঠিক কতটা ছোট হতে পারে আজ আপনাদের আমরা এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করব । তাই চলুন আর দেরি না করে  শুরু করা যাক ব্রহ্মাণ্ডে আমাদের সব থেকে কাছের প্রতিবেশী হলো চাঁদ আপনারা অনেকেই হয়তো ভাবেন যে চাঁদ আমাদের পৃথিবীর খুব কাছেই অবস্থিত। কেননা রাতের আকাশে চাঁদের আলোয় বিরাজ করে কিন্তু বাস্তবে চাঁদ আমাদের পৃথিবীর এতটা কাছে অবস্থিত নয়। আমাদের পৃথিবী থেকে প্রায় তিন লক্ষ চুরাশি হাজার চারশো কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ।আর এই দূরত্বের মধ্যে দৃষ্টি পৃথিবী জায়গা করে নিতে পারবে আর যদি আপনি কোন ভাবে একটা না একটা গাড়ি ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার বেগে চালাতে পারেন তবে ওই দূরত্বে পৌঁছাতে আপনার ১৬০ দিন সময় লাগবে। দূরত্ব সত্ত্বেও মানুষ কিন্তু চাঁদে পা রেখেছেন আর পৃথিবী থেকে মানুষটিকে আজ পর্যন্ত পৌঁছাতে পেরেছেন। তাই এটা মানব সভ্যতার এক মহান কীর্তি হিসেবে গণ্য করা হয় । যদি আপনি ছাদে দাঁড়িয়ে পৃথিবী কে দেখার চেষ্টা করেন তবে পৃথিবীতে এরকম দেখাবে আর যদি আপনি পৃথিবীতে কাউকে কোন বার্তা পাঠাতে চান তবে সেকেন্ড সময় লাগবে থেকে পৃথিবীতে আপনার প্রিয়জনের কাছে পৌঁছাতে গতিবেগে যাতায়াত করে । এখন যে ফটোটা আপনারা দেখছেন সেটা মঙ্গল গ্রহ থেকে তোলা হয়েছে আর এই ছবিতে যে ছবি আপনারা দেখতে পাচ্ছেন সেটা হলো আমাদের পৃথিবী মঙ্গল গ্রহের পৃষ্ঠ থেকে আমাদের পৃথিবী মঙ্গল গ্রহ পৃথিবী থেকে ২৫ মিলিয়ন কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। সর্বোচ্চ ১ মিলিয়ন কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে এর অর্থ হচ্ছে যদি মানুষ কখনো সত্যি হতে পারে তবে যতটা দূরত্ব চাঁদে পা রাখা মহাকাশচারীদের পৃথিবীতে গেছিল ।ঐ ব্যক্তি দূরত্বের ৯৮৬ গুণ বেশি দূরে থাকবে তাছাড়া মঙ্গল থেকে পৃথিবীকে পাঠাতে কিন্তু নয় বরং আলোর গতিবেগ হিসেব করলে প্রায় কুড়ি মিনিট লাগবে ।

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন